নির্বাচনে যেসব যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা থাকবে

প্রকাশ : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৭:১৭

সাহস ডেস্ক

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে শুক্রবার (২৮ ডিসেম্বর) দিবাগত রাত ১২টা থেকেই সারা দেশে মোটরসাইকেল চলাচল বন্ধ থাকবে। এ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। নিষেধাজ্ঞা জারি থাকবে আগামী ১ জানুয়ারি মাঝরাত পর্যন্ত। তবে ইসির দেওয়া স্টিকার নিয়ে সাংবাদিকরা মোটরসাইকেল চালাতে পারবেন।

অন্যদিকে, সব ধরনের যন্ত্রচালিত পরিবহন চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা শুরু হবে শনিবার (২৯ ডিসেম্বর) দিবাগত রাত ১২টা থেকে। চলবে ৩০ ডিসেম্বর দিবাগত রাত ১২টা পর্যন্ত।

জানা যায়, শনিবার (২৯ ডিসেম্বর) রাত ১২টা থেকে ৩০ ডিসেম্বর রাত ১২টা পর্যন্ত বেবিট্যাক্সি, অটোরিকশা, ইজিবাইক, ট্যাক্সিক্যাব, মাইক্রোবাস, জিপ, পিকআপ, কার, বাস, ট্রাক, টেম্পোসহ স্থানীয় পর্যায়ে যন্ত্রচালিত সব ধরনের যানবাহন বন্ধ থাকবে।

আর ভোটারদের চলাচলের জন্য ইঞ্জিনচালিত ক্ষুদ্র নৌযান নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়বে না। তবে লঞ্চ ও অন্যান্য ইঞ্জিনচালিত নৌযান বন্ধ থাকবে। এ ছাড়া নির্বাচনকালে বিমান ও ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক থাকবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

নির্বাচনের প্রতীক পাওয়ার পর থেকে টানা ১৮ দিন প্রচার চালানোর পর শুক্রবার (২৮ ডিসেম্বর) সকাল ৮টায় নির্বাচন কমিশনের বেঁধে দেওয়া প্রচারের সময়সীমা শেষ হয়েছে।

আর মাত্র ৪৮ ঘণ্টা পরই শুরু হয়ে যাবে কাঙ্ক্ষিত ভোটপর্ব। ভোটাররা সেই আশায় আছেন। তাঁরা ভোটের মাধ্যমে রায় দিয়ে পাঁচ বছরের জন্য কোনো একটি দল/জোটকে ক্ষমতায় বসাবেন।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, এবারের নির্বাচনে নিবন্ধিত ৩৯টি রাজনৈতিক দলই অংশ নিচ্ছে। এক দশক পর ভোটের মাঠে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ ও বিএনপি।

এবারের নির্বাচনে সারা দেশে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন এক হাজার আটশর বেশি প্রার্থী। এর মধ্যে ৫০ জনের মতো রয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী, বাকিরা বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের।

এবার ৩০০ আসনে ভোটার ১০ কোটি ৪২ লাখ ৩৮ হাজার। নির্বাচনে ৪০ হাজার ১৮৩টি ভোটকেন্দ্র ও দুই লাখ ছয় হাজার ৪৭৭টি ভোটকক্ষ রয়েছে। একজন প্রার্থীর মৃত্যুর কারণে গাইবান্ধা-৩ আসনে ভোট স্থগিত করে পুনঃতফসিল দেওয়া হয়েছে।

এবারই প্রথম সংসদ নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার করা হচ্ছে। ছয়টি আসনে ইভিএম ব্যবহার করা হবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত