সাতক্ষীরায় সংরক্ষিত নারী আসনে আলোচনায় শীর্ষে ছয় প্রার্থী

প্রকাশ | ১৬ জানুয়ারি ২০১৯, ১৪:০৬

অনলাইন ডেস্ক
জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত (সাতক্ষীরা ৩১২) নারী আসনে আওয়ামী লীগের কোটায় এমপি হওয়ার জন্য সাতক্ষীরা নেত্রীরা কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছে।
 
গত ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর সংসদ সদস্য এবং মন্ত্রীসভার শপথ গ্রহণ শেষে মূলত সাতক্ষীরায় আলোচনা শুরু হয়েছে নারী সংসদ সদস্যদের নিয়ে। লবিং, তদবির, দৌড়ঝাপে কে কার থেকে এগিয়ে যেতে পারে তা নিয়ে রীতিমত প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে অনেকের নাম ভাইরাল হয়েছে। প্রার্থীর আলোচনায় ছয় প্রার্থী শীর্ষে রয়েছে।
 
সাতক্ষীরা ও যশোর জেলা নিয়ে গঠিত জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসন ৩১২। দেশ স্বাধীনের পর থেকে এ পর্যন্ত যে ১০ টি জাতীয় সংসদ গঠন হয়েছে তার মধ্যে দ্বিতীয় জাতীয় সংসদ ও দশম জাতীয় সংসদে সাতক্ষীরার নারীরা জায়গা পেয়েছিল। দশম জাতীয় সংসদে সাতক্ষীরা জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী রিফাত আমিন সংরক্ষিত আসনে এমপি হিসেবে শপথ নেন। তিনি আবারও একাদশ জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত আসনে লড়তে চান বলে গুঞ্জন রয়েছে।
 
সংরক্ষিত নারী আসনে মনোনয়ন চাইবেন সাতক্ষীরা জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সদস্য সচিব লায়লা পারভিন সেজুঁথি। তিনি সাতক্ষীরার তালা উপজেলার একটি বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।
 
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাতক্ষীরা-১ আসনে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার জন্য লায়লা পারভিন সেজুঁথি দলীয় মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছিলেন। কিন্তু আসনটি শরীক দলের হাতে ছেড়ে দেওয়ার কারণে সে ইচ্ছা আর পূরন হয়নি। দীর্ঘদিন ধরে লায়লা পারভিন সেজুঁথি মাঠে কাজ করছেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি জেলার বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ করে সাধারণ মানুষের মনে জায়গা করে নিয়েছেন। 
 
লায়লা পারভিন সেজুঁথি বলেন, আমার পিতা ছিলেন প্রখ্যাত রাজনীতিবীদ। ছোট বেলা থেকেই বাবার কাছে শিখেছি কিভাবে মানুষের সেবা করতে হয়। আমি এমপি হতে পারলে মানুষের সেবা নিশ্চিত করবো, জেলার সার্বিক উন্নয়নে কাজ করবো।
 
সংরক্ষিত নারী আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন চাইবনে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের খ্যাতিমান কন্ঠশিল্পী, সাতক্ষীরা জেলা বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক ও জেলা শিল্পী ঐক্যজোটের সাংস্কৃতিক সম্পাদক চৈতালি মুখার্জ্জী। তিনি সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়ন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক। বাংলার সন্ধ্যাকণ্ঠি হিসেবে খ্যাত চৈতালি মুখার্জ্জী।
 
আওয়ামী লীগ পরিবারে জম্ম চৈতালী মুখার্জী একজন দক্ষ সাংস্কৃতিক সংগঠক। তিনি বলেন, আমি আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান। সংরক্ষিত আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন চাইবো। আমি জানি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা শিল্পিদের জন্য নিবিদিতপ্রাণ। দেশের দক্ষিণ অঞ্চল থেকে আজ পর্যন্ত কোন কণ্ঠশিল্পীকে সংরক্ষিত মহিলা আসনে এমপি করা হয়নি। সেদিক থেকে আমি আশাবাদি।
 
সংরক্ষিত নারী আসনে এমপি হওয়ার জন্য সাতক্ষীরা জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি, সাতক্ষীরা পৌরসভার মহিলা কমিশনার ফারহা দীবা খান সাথি মাঠে নেমেছেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে সাতক্ষীরা পৌরসভার মহিলা কমিশনার হিসেবে মানুষের সেবা করে যাচ্ছেন।
 
তিনি বলেন, এমপি হতে পারলে সাতক্ষীরার সার্বিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবো। সাতক্ষীরা জেলা পরিষদের মহিলা সদস্য, সাতক্ষীরা জজ কোটের এপিপি অ্যাডভোকেট শাহানাজ পারভিন মিলি। সংরক্ষিত আসনে তিনিও মনোনয়ন চাইবেন। নারী নেত্রী হিসেবে তার রয়েছে বেশ পরিচিতি। সাতক্ষীরা সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে পাঁচ বছর কাজ করেছেন। বাল্য বিবাহ, যৌতুকের বিরুদ্ধে তিনি লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন।
 
প্রসঙ্গত ১৫ জানুয়ারি থেকে আওয়ামী লীগ সংরক্ষিত নারী আসনে দলীয় মনোনয়ন ফরম ছাড়বেন বলে ঘোষণা করেছেন। সাতক্ষীরার আলোচিত এসব প্রার্থীরা ইতোমধ্যে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন।
 
সাহস২৪.কম/ইতু/রিয়াজ